প্রবল বর্ষণে রাউজানে বন্যায় প্লাবিতঃঃ লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী

 ২০১৯-০৭-১৪  ১০:৪২ পিএম
 শাহাদাত হোসেন , চট্টগ্রাম রাউজান প্রতিনিধি :

প্রবল বর্ষণে রাউজানে বন্যায় প্লাবিতঃঃ  লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী

প্রবল বর্ষণে রাউজান উপজেলায় বন্যায় প্লাবিত হয়ে লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হযে পড়েছে।  বিধস্ত হয়েছে রাস্তাঘাট।  পানিতে তলিয়ে স্কুল,  কলেজ, বিদ্যালয়ের মাঠ ও বসতবাড়ি-ঘর,  ফসলী জমি। সরজমিনে পরিদর্শনে দেখা যায়  - টানা প্রবল বর্ষণ ও  উজান থেকে নেমে আসা  পাহাড়ি ঢলের শ্রোতে সর্তার খাল ও ডাবুয়া খাল ভাঙ্গনে  রাউজান উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন  ১টি পৌরসভার বেশীরভাগ এলাকা পানির নিচে তলিয়ে গেছে। 
লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। শনিবার   চট্রগ্রাম রাঙামাটি সড়কের উপর দিয়ে পানি  গড়িয়ে  রাঙামাটি সড়কের কয়কটি স্থানে  হাঁটু থেকে কোমর পানিতে তলিয়ে গেছে।  উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের শ্রোতে সর্তার খাল ও   ডাবুয়া খালের বাঁধ ভেঙ্গে যায়।  সর্তার খাল -ডাবুয়া খালের বাঁধ ভাঙ্গা  দিয়ে দ্রুতগতি পানি প্রবাহিত হলে  ডাবুয়া,   চিকদাইর  , নোয়াজিষপুর  , গহিরা , রাউজান ,   বীনাজুরী    উরকিরচর ,  বাগোয়ান, নোয়াপাড়া,  গুজরা,  পূর্ব গুজরা ইউনিয়ন সহ রাউজান পৌরসভার বেশীরভাগ এলাকায় পানি ঢুকে তলিয়ে গেছে বাড়ী-ঘর - ফসলী জমি ও রাস্তাঘাট ।  চট্টগ্রাম রাঙামাটি সড়ক থেকে শুরু হওয়া  হাফেজ বজুলর রহমান সড়কটি বিধস্ত হয়ে পড়েছে। সড়কটি উপর দিয়ে পানি গড়াচ্ছে। বন্ধ রয়েছে  যানচলাচল। 

স্থানীয়া জানান- সর্তার খাল বেড়ীবাঁধ  ভেঙ্গে গেলে দ্রুতগতি পানি রাউজানের বিভিন্ন  এলাকা ঢুকে পড়েছে। শনিবার বিকাল ৩টায় পশ্চিম -ডাবুয়া   জাঙ্গেরীয়া চৌধুরী ঘাটায় সর্তার খালের বেড়ীবাঁধ ভেঙ্গে পড়েছে।    সর্তার খাল ও ডাবুয়া খালের ভাঙ্গনে চিকদাইর,  নোয়াজিষপুর,  রাউজান, বীনাজুরী ইউনিয়ন, গহিরা মোবারক খীল, পশ্চিম সুলতানপুর এলাকার বেশীরভাগ বাড়ী-ঘর,  রাস্তাঘাট, ফসলী জমি,  বীজতলা ও মাছ চাষারের পুকুর ডুবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।  নোয়াজিষপুর  অদুদ চৌধুরী সকড়টি  পানিতে ডুবে গিয়ে যানচলাচলের সমস্যা দেখা দেয়।  কয়েকটি সড়কও বিধস্ত হয়ে পড়েছে।  নোয়াজিষপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম সরোয়ার্দী সিকদার বন্যা কবলিত এলাকা পরিদর্শন করে  বন্যা কবলিত মানুষদের মাঝে শুকনা খাবার বিতরণ করেছে বলেও জানা যায়।  চিকদাইর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান প্রিয়তোষ চৌধুরী জানান- তার  ইউনিয়নে চিকদাইর পাঠানপাড়া এলাকার বাড়ী-ঘর ও কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক -ডাবুয়া খালের ভাঙ্গনে  পানিতে ডুবে গিয়ে কয়ক হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছে।

সর্তার খাল ভাঙ্গনে চিকদাইর ইউনিয়ন পরির্ষদও হুমকির মুখে পড়েছে।  ডাবুয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আব্দুর রহমান চৌধুরী জনান - তার ইউনিয়নে -ডাবুয়া খালের বাঁধ ভেঙ্গে গিয়ে কয়কটি কান্দিপড়া,  রামনাথ পাড়া, দক্ষিণ হিংগলা, পশ্চিম ডাবুয়া এলাকার বাড়ী-ঘর - রাস্তাঘাট পানিতে ডুবে গেছে। রাউজান ইউনিয়ন চেয়ারম্যান এবি জসিম উদ্দিন হিরু জানান- তার  ইউনিয়নে হাফেজ বজুলর রহমান সড়কটি  নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের শ্রোতে বিধস্ত হয়ে যানচলাচলের সমস্যা হয়ে পড়েছে।  কয়েকটি এলাকার  বাড়ী-ঘর ও ফসলী জমি পানিতে ডুবে যায়।  রাউজান পৌর প্যানেল মেয়র আলহাজ্ব বশির উদ্দীন খাঁন জানান-  তার এলাকার  গহিরা মোবারক খীল খাঁন আব্দুল জব্বার বাহাদুর  সড়কটি পানিতে ডুবে গিয়ে যানচলাচল করতে পারছেনা। তার পাশাপাশি বাসিন্দাদের বাড়ী-ঘর ডুবে গেছে।  কর্ণফুলী নদী ও হালদা নদীতেও বেড়েছে তীব্র  পানিও। পৌর ৪নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলার শওকত হাসান জানান- তার এলাকায় মকবুল শাহ্ সড়ক ডুবে ৪নং  ওয়ার্ডের বাসিন্দাদের  বাড়ী-ঘর , জনগণের চলাচলের সড়ক পানিতে   ডুবে গেছে।  রাউজান উপজেলা আওয়ামীলীগ ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছে -   রাউজানের বন্যায় কবলিত মানুষকে সাহায্য সহযোগিতা ও খবরাখবর নিতে  সাংসদ  এবি এম ফজলে করিম চৌধুরীর নির্দেশ দিয়েছেন স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামীলীগ,  যু্বলীগ,  ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের।  
রাউজানে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের জন্য ত্রাণ ও পুনঃবাসন মন্ত্রনালয় ২০ মেট্রিক টন চাউল, ২শত প্যকেট শুকনা খাওয়ার ও ১লাখ টাকা বরাদ্দ দিয়েছেন । বরাদ্দ পাওয়া চাউল ও শুকনা খাওয়ার আদ ১৩ জুলাই শনিবার স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের মাধ্যমে বন্যা দুর্গত এলাকার মানুষদের বিতরন করা হয় বলে জানান রাউজান উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসার নিয়াজ মোরশেদ।