প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেনের ৭৯তম জন্মদিন উদযাপন

 ২০১৯-০৮-০৫  ০৯:২৫ পিএম
 চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেনের ৭৯তম জন্মদিন উদযাপন

আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন সমাজবিজ্ঞানী ও শিক্ষায় একুশে পদকপ্রাপ্ত প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেনের ৭৯তম জন্মদিন উদযাপন করেছে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি। গতকাল ০৫ আগস্ট ২০১৯,  সোমবার, দিনব্যাপী নগরীর প্রবর্তক মোড়স্থ প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে উপাচার্য কার্যালয়ে তাঁর এই জন্মদিন উদযাপন করা হয়। এসময় তাঁকে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগ, অর্থনীতি বিভাগ, ব্যবসা-প্রশাসন বিভাগ, কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ, তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগ, স্থাপত্য বিভাগ, ইংরেজি বিভাগ, গণিত বিভাগ, পুলা, পিইউডিএস এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তা-কর্মচারিদের পক্ষ থেকে ফুলের তোড়া দিয়ে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানানো হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন ব্যবসা-প্রশাসন বিভাগের অধ্যাপক অমল ভূষণ নাগ, কলা ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. মোহীত উল আলম, প্রকৌশল অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তৌফিক সাঈদ, ব্যবসা-শিক্ষা অনুষদের সহকারী ডিন মঈনুল হক, স্থাপত্য বিভাগের চেয়ারম্যান সোহেল এম শাকুর, গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইফতেখার মনির, তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান টুটন চন্দ্র মল্লিক, স্থাপত্য বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আশিকুর রহমান, আইন বিভাগের চেয়ারম্যান তানজিনা আলম চৌধুরী, ইংরেজি বিভাগের চেয়ারম্যান সাদাত জামান খান, অর্থনীতি বিভাগের চেয়ারম্যান ফারজানা ইয়াসমিন চৌধুরী, তড়িৎ প্রকৌশল বিভাগের চেয়ারম্যান টুটন চন্দ্র মল্লিক প্রমুখ। 

এসময় উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন তাঁর অনুভূতি ব্যক্ত করে বলেন, ০৫ আগস্ট আমার জন্মদিন, একথা আমার মনেই ছিল না। কিন্তু প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি পরিবার আমার জন্মতারিখ মনে রেখেছে এবং আজ পালন করছে।  প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির এই ভালবাসায় আমি অভিভূত। জীবনের শেষদিন পর্যন্ত এই ভালবাসাকে আমি পাথেয় করে রাখব। আমি যখন চোখ বুজব, মনে হয়, তখনও এই ভালবাসা আমার অন্তরে বিরাজ করবে।

‘ষাট বছর বয়স পেরুনোর পর জন্মদিন স্মরণ করানোর অর্থ হলো মৃত্যুর কথা মনে করানো’ মন্তব্য করে তিনি বলেন, মৃত্যুর কারণে জীবনকে অর্থহীন মনে করার কোন কারণ নেই। এ জীবনের গভীর অর্থ রয়েছে। মানব-সেবায় নিজেকে নিযুক্ত করার মধ্য দিয়েই জীবনকে অর্থবহ করা যায়। 

তিনি তাঁর শিক্ষক ও পুরনো বন্ধুদের স্মরণ করে বলেন, ১৯৬৫ সাল থেকে শিক্ষকতায় নিয়োজিত আছি। পূর্ব পাকিস্তান প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (বর্তমান বুয়েট), ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেছি। বর্তমানে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে উপাচার্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছি। বস্তুত আমি যে এখনও শিক্ষকতায় নিয়োজিত আছি, এটা আমার জীবনের পরম পাওয়া। তিনি তাঁর লেখালেখি সম্পর্কে বলতে গিয়ে তাঁর ‘দি স্টেট, ইন্ডাস্ট্রিয়ালাইজেশন এন্ড ক্লাশ ফরমেশনস ইন ইন্ডিয়া’ গ্রন্থ সম্পর্কে বলেন, বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান ‘রাউটলেজ এন্ড কেগানপল’ ১৯৮২ সালে গ্রন্থটি প্রথম প্রকাশ করে। প্রায় সাড়ে তিন দশক পরে রাউটলেজ আবার গ্রন্থটি প্রকাশ করেছে ২০১৭ সালে, ‘রাউটলেজ লাইব্রেরি এডিশন’ হিসেবে। খুব মূল্যবান গ্রন্থকেই সাধারণত ‘লাইব্রেরি এডিশন’ হিসেবে প্রকাশ করা হয়। ‘রাউটলেজ লাইব্রেরি এডিশন: ব্রিটিশ ইন ইন্ডিয়া’ শিরোনামের এই এডিশনের ২৩ তম খ- হিসেবে গ্রন্থটি প্রকাশিত হয়েছে। এজন্য আমি রাউটলেজের কাছে গভীরভাবে কৃতজ্ঞ।

শেষে উপাচার্য প্রফেসর ড. অনুপম সেন জন্মদিনের কেক কাটেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার এ কে এম তফজল হক, উপাচার্যের উপদেষ্টা ও চীফ ইঞ্জিনিয়ার আবু তাহের, রেজিস্ট্রার খুরশিদুর রহমান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক শেখ মোহাম্মদ ইব্রাহিম, উপ-পরিচালক (হিসাব) হাছানুল ইসলাম চৌধুরী, স্থপতি শহিদুল হক ও ডেপুটি লাইব্রেরিয়ান কাউছার আলম প্রমুখ।