শেখ নাসির উদ্দিন, খুলনা প্রতিনিধিঃ
অবশেষে খুলনার দু’টি রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকলের শ্রমিকরা কাজে যোগ দিয়েছেন। ফলে টানা ১৯ কর্মদিবস বন্ধ থাকার পর খালিশপুর ও দৌলতপুর জুট মিলের উৎপাদন শুরু হয়েছে।
গতকাল (১৮ জানুয়ারী)  বৃহস্পতিবার সকাল ১০টায় মহানগরীর খালিশপুর শিল্পাঞ্চলের দৌলতপুর ও দুপুর ২টায় খালিশপুর জুট মিলের শ্রমিকরা কাজে যোগ দেন। প্রথমদিনে এ দু’টি পাটকলে ২ হাজার ৮৭১ শ্রমিক কাজে যোগ দিয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।
তবে এখনও খুলনার রাষ্ট্রায়ত্ত ক্রিসেন্ট, প্লাটিনাম, স্টার, ইস্টার্ন, আলিম ও যশোরের জেজেআই জুট মিলের উৎপাদন বন্ধ রয়েছে। বকেয়া মজুরি প্রদানের দাবিতে গত ২৮ ডিসেম্বর থেকে পর্যায়ক্রমে ৮টি পাটকলের শ্রমিকরা উৎপাদন বন্ধ করে দিয়েছিলেন।
খালিশপুর জুট মিলের সিবিএ কার্যকরী সভাপতি মোঃ মিজানুর রহমান মানিক বলেন, মিল কর্তৃপক্ষেও সাথে বৈঠক হয়েছে। বৈঠকে আজ (গতকাল) বৃহস্পতিবার ২ সপ্তাহের মজুরি এবং আগামী সপ্তাহে এক সপ্তাহের মজুরি প্রদানসহ পর্যায়ক্রমে বকেয়া মজুরি প্রদানের আশ্বাসে শ্রমিকরা দুপুরে কাজে যোগদান করেছেন।
খালিশপুর জুট মিলের প্রকল্প প্রধান শফিকুল ইসলাম জানান, শ্রমিকদের বকেয়া ৫ সপ্তাহের মজুরির মধ্যে ২ সপ্তাহের মজুরি প্রদান করা হয়েছে। আগামী সপ্তাহে আরেকটি মজুরি দেওয়া হবে। মিলের ২ হাজার ৩৯৮ জন শ্রমিক কাজে ফিরেছেন।
দৌলতপুর জুট মিলের প্রকল্প প্রধান মোঃ সাজ্জাদ হোসেন জানান, শ্রমিকদের বকেয়া ৩ সপ্তাহের মজুরির মধ্যে ২ সপ্তাহের মজুরি পরিশোধ করা হয়েছে। আরেক সপ্তাহের মজুরি শিগগিরই পরিশোধ করা হবে। মিলের ৪৭৩ জন শ্রমিক কাজে যোগ দিয়েছেন।
ক্রিসেন্ট জুট মিল সিবিএ’র সাধারণ সম্পাদক মোঃ সোহরাব হোসেন বলেন, বকেয়া মজুরি পরিশোধ না করা পর্যন্ত শ্রমিকরা কাজে ফিরে যাবে না।
Attachments area