ঐতিহ্যবাহী লেলাং ইউনিয়নের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত তা’লীমুল উম্মাহ ইসলামী একাডেমীর শুভ উদ্ভোধনী অনুষ্ঠান অদ্য ১৭ জানুয়ারী ‘১৮,বুধবার একাডেমী মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়।
সর্বপ্রথম একাডেমীর প্রধান ফটকের সামনে বাংলাদেশের জাতীয় পতাকা উত্তোলন ও ফটকে ফিতা কেটে একাডেমীর শুভ উদ্ভোধন ঘোষণা করেন লেলাং ইউনিয়নের মাটি ও মানুষের পরম বন্ধু,শিক্ষানুরাগী,দানবীর,১৩ নং লেলাং ইউপি’র সম্মানীত চেয়ারম্যান জনাব আলহাজ্ব মোঃ সরোয়ার উদ্দীন চৌধুরী শাহীন।
উক্ত উদ্ভোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম জেলা পরিষদ সদস্য ও ড.মাহমুদ হাসান ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আখতার উদ্দীন মাহমুদ পারভেজ।
উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন তা’লীমুল উম্মাহ ইসলামী একাডেমীর সম্মানীত চেয়ারম্যান জনাব আলহাজ্ব ইফতেখার উদ্দীন চৌধুরী।
এতে আলোচক হিসেবে উপস্তিত ছিলেন চবি’র সহকারি রেজস্ট্রার শহীদুল আজীম আজাদ,বিশিষ্ট কলামিস্ট ও লেখক মাওলানা দৌলত আলী খান,দারুল আফকার আল ইসলামীয়া চট্টগ্রাম’র প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক মাওলানা জাকারিয়া হাসনাবাদী,মোঃআবদুল হাই,এন এম রহমত উল্লাহ,সৈয়দ মোঃ মাসুদ,আলহাজ্ব দিদারুল হক,মাষ্টার জসীম উদ্দীন,আহমেদ এরশাদ খোকন প্রমূখ।
এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আলহাজও মাহবুবুল আলম,এস এম সরওয়ার হোসেন,তহিদ মিয়া,শফিউল আলম,আইয়ুব,নুর মোহাম্মদ,কামাল উদ্দীন,ইফতেহার উদ্দীন মুরাদ,রাসেল,নুরুল হুদা,তহিদুল আলম,সালাহ উদ্দীন জিকু,জোনায়েদ প্রমূখ।
আলোচনা সভায় উপস্থিত বক্তারা বলেন, দ্বীনি ও জাগতিক শিক্ষার সমন্বয়ে প্রতিষ্ঠিত এই প্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীর নৈতিক ও প্রতিভা জাগরণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।যুগের চাহিদা ও মানসম্মত শিক্ষা পাঠদানে শিক্ষার্থী যেমন বহুমাত্রিক জ্ঞান অর্জন করতে পারবে তেমনি নৈতিক শিক্ষা অর্জনের মাধ্যমে দ্বীন ইসলামের সকল বিধিবিধান সম্পর্কে অবহিত হবে।তথ্য প্রযুক্তির অপব্যবহার, অপসংস্কৃতির হিংস্র থাবায় যুব সমাজ আর কলুষিত। সু-শিক্ষা অর্জন,সুষ্ঠু ও সুন্দর সংস্কৃতি লালন,তথ্য প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহারে যুব সমাজকে আরো সজাগ হতে হবে।এজন্যে জনসচেতনতার পাশাপাশি দ্বীনি ও নৈতিক শিক্ষার প্রসারে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গকে আরো আন্তরিক ও দায়িত্ববান হওয়ার আহ্বান জানান।এসময় বক্তারা বলেন,পুঁথিগত বিদ্যা কখনো শিক্ষার প্রকৃত উদ্দেশ্য কিংবা শিক্ষার্থীর জীবনে আমোল পরিবর্তন ঘটানো সম্ভব নয়।তাই, শিক্ষার্থীর মেধা মননে ব্যবহারিক শিক্ষা অর্জনের দিকেও লক্ষ রাখা আবশ্যক।
আলোচনা অনুষ্ঠানের পর প্রতিষ্ঠান কর্তৃক প্রকাশিত ২০১৮ সালের দিনপঞ্জিকার মোড়ক উন্মোচন করেন সকল অতিথিবৃন্দ।